বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী

টিকা ছাড়া ১৮ বছরের উপরের কেউ বাইরে চলাচল করলে তাকে সাজার আওতায় আনা হবে-এমন বক্তব্য দিয়েছিলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। গতকাল মঙ্গলবার আন্তঃমন্ত্রণালয়ের এক সভা শেষে এ কথা বলেন তিনি।

তবে সমালোচনার মুখে সেই বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী। আজ বুধবার মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। সেখানে বলা হয়, ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে সকল নাগরিককেই পর্যায়ক্রমে কোভিড-১৯ টিকার আওতায় নিয়ে আসা হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের পাশে বসে গতকাল মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ‘অবশ্যই সবাইকে ভ্যাকসিন নিতে হবে। দেশব্যাপী ১৪ হাজার কেন্দ্রে ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ১১ তারিখ থেকে কঠোরভাবে আইন প্রয়োগ করবে। টিকা ছাড়া ১৮ বছরের বেশি কেউ চলাচল করলে তাকে সাজার আওতায় আনা হবে।’ মন্ত্রী আরও বলেন, ‘আইন না করলেও অধ্যাদেশ জারি করে হলেও শাস্তি দেওয়ার ক্ষমতা দেওয়া হবে। যেহেতু সংসদ বন্ধ তাই আইন পাস করা সম্ভব নয়।’

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রীর ওই বক্তব্যের পর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ বিভাগ থেকে পাঠানো একটি বার্তায় বলা হয়, টিকা নেওয়া ছাড়া ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে কেউ বাইরে বের হতে পারবে না বলে যে সংবাদটি প্রচার হচ্ছে, তা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়নি। এ ধরনের কোনো সিদ্ধান্ত বা প্রস্তাবনা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কোথাও দেওয়া বা নেওয়া হয়নি।