শাহিন আনাম মাহফুজ আনামদের যেখানে পাওয়া যাবে সেখানেই প্রতিহত করা হবে

শাহিন আনাম, এরোমা দত্ত, এনজেলা গোমেজ, মাহফুজ আনামরা হিন্দু আইন সম্পর্কে কিছুই জানেন না। হিন্দু ধর্ম নিয়েও তাদের কোনো জ্ঞান নেই। তারা বিদেশ থেকে টাকা এনে আয়েশ করেন। আর সহজ-সরল হিন্দুদের ভুল বুঝাচ্ছেন। এদের যেখানে পাওয়া যাবে সেখানেই প্রতিহত করতে হবে।

বাংলাদেশ হিন্দু তফসিল জাতি ফেডারেশনের সভাপতি প্রকাশ দাস চৌধুরী ও সহ-সভাপতি অমিও সরকার সংগঠনের সাবেক সভাপতি সুধির চন্দ্র সরকারের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব জানানো হয়েছে।

নেতাদের বক্তব্যের বরাত দিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এনজিওর মাধ্যমে টাকা এনে শাহিন আনাম, মাহফুজ আনামরা নিজেদের পকেট ভরছেন। কোথাও কোথাও তাদের এজেন্টদের দিয়ে টাকা ছড়াচ্ছেন। এরা হিন্দুদের অস্তিত্ব ধ্বংস করে ভূমিহীন করার ষড়যন্ত্র করছেন। এ জন্য হিন্দুদের মধ্যে চরম উৎকণ্ঠা সৃষ্টি হয়েছে। হিন্দুরা আতঙ্কে আছে। এই অপপ্রচারকারীদের যেখানে পাওয়া যাবে সেখানেই প্রতিহত করা হবে। হিন্দুদের অস্তিত্ব রক্ষায় এখনই তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে প্রধানমন্ত্রীর কাছেও দাবি জানান তারা।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, এই ষড়যন্ত্রকারীদের আইনের আওতায় আনা না গেলে হিন্দুরা বিপদের মুখে পড়বে। বিশৃঙ্খলা বেড়ে যাবে। তারা বলেন, অর্পিত সম্পত্তি নিয়ে তো তারা কথা বলেন না। এই পন্ডিত ব্যক্তিরা আমাদের দেশের শত্রু, এরা জাতীয় শত্রু। এই শত্রুদের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে। তারা আরও বলেন, তবে একটা আইন মানবিক কারণে পরিবর্তন করা একান্ত প্রয়োজন। শুধু কন্যাসন্তান থাকলে পৈতৃক সম্পত্তিতে তার অধিকার ত্বরিতগতিতে আইন করে তাকে দেওয়া উচিত। এর বাইরে হিন্দু আইনে আর একটুও পরিবর্তনের প্রশ্নই আসে না।