মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার ৫ কারণ ও নিরাময়ের সহজ উপায়

মুখে দুর্গন্ধ মানুষের সবচেয়ে সাধারণ সমস্যাগুলির মধ্যে একটি। কখনও কখনও দুর্গন্ধ সৃষ্টির কারণ খুঁজে পাওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। কিন্তু আপনি যদি এর কারণের সঙ্গে পরিচিত হন তখন দেখবেন এটি নিরাময় করা খুবই সহজ। এছাড়াও মুখের গন্ধ আপনাকে নিজের সম্পর্কে অতিরিক্ত সচেতন করতে পারে। দুর্গন্ধ বেশি হলে তা আপনার আত্মবিশ্বাসের ওপর প্রভাব ফেলতে পারে। সুতরাং মুখে যাতে গন্ধ না বের হয় সেটা খেয়াল রাখা বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ।

দুর্গন্ধের ৫ টি প্রধান কারণ এবং নিরাময়ের উপায়:

খাদ্য-

যখন আপনি খাবার চিবিয়ে খান, তখন আপনি যা খান তা আপনার দাঁতের মধ্যে আটকে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। যখন দীর্ঘ সময় ধরে সেই খাবার আটকে থাকে, তখন এটি জীবাণু এবং ব্যাকটেরিয়ার জন্ম দেয়। যা পরে দুর্গন্ধ সৃষ্টি করে। রসুন, পিঁয়াজ এবং কিছু মশলা মানুষের মুখের দুর্গন্ধ সৃষ্টি করে যা মানুষের মুখে অনেকক্ষণ ধরে থাকে।

ডিহাইড্রেশন-

শুকনো মুখ বেশিরভাগ ব্যাকটেরিয়া সৃষ্টির স্থান করে দেয় যা মুখের মধ্যে দুর্গন্ধ তৈরি করে। এখানে যে লালা তৈরি হয় তা বাজে গন্ধের ক্ষেত্রে প্রধান ভূমিকা পালন করে। আমাদের জিভও ব্যাকটেরিয়ার প্রজননের জন্য একটা ভাল জায়গা। প্রচুর পরিমাণে পানি খেলে মুখ আর্দ্র, পরিষ্কার এবং দুর্গন্ধমুক্ত থাকে। তাই পানি খাওয়া মুখের গন্ধ দূর করার ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তামাকজাত দ্রব্য-

ধূমপান যারা করে এবং মুখে তামাক রাখে যারা, তাদের মাড়ির রোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি থাকে। যা মুখের দুর্গন্ধের দিকে নিয়ে যায়। তাই এদের মধ্যে যারা দুর্গন্ধ দূর করার উপায় খুঁজছে, তারা ভাজা মৌরি চিবানোর চেষ্টা করতে পারে। এটা খাবারের পর হজমের জন্য উপকারী হওয়ার পাশাপাশি মুখের দুর্গন্ধ মোকাবেলার জন্যও উপকারী।

ওষুধ-

কিছু ওষুধের কারণেও মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে। কারণ তারা রক্তে কিছু রাসায়নিক পদার্থ ছেড়ে দেয় যে এই গন্ধের সৃষ্টি করে।  কিছু ওষুধ আপনার মুখকে শুকিয়ে ফেলে যা লালা উৎপাদনের পরিমান কমিয়ে দেয়, ফলে মুখের দুর্গন্ধ বৃদ্ধি পায়। কিছু শক্তিশালী ওষুধও আছে যা ফেনোথিয়াজিন, কেমোথেরাপি কেমিক্যাল এবং নাইট্রেটের মতো উপাদান নিঃসরণ করায় মুখে গন্ধ ছাড়ে।

অ্যালকোহল এবং কফির অতিরিক্ত ব্যবহার-

ক্যাফেইন লালা উৎপাদনে বাধা দেয় যার ফলে দুর্গন্ধ হয়। যেখানে অ্যালকোহল শরীরে পানির পরিমাণ কমিয়ে দেয়। যার ফলে পক্ষান্তরে লালা উৎপাদনের পরিমাণ কমে যায়। যদি আপনি আপনার মুখকে দুর্গন্ধহীন রাখতে চান তাহলে  গাজর, পালং শাক, শসা এবং সাইট্রাস ফল খেতে পারেন।