দুর্নীতি দমনের জন্য সংসদকেই দায়িত্ব নিতে হবে: মেনন

সংসদে দাঁড়িয়ে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, দুর্নীতি দমন ও অনুসন্ধানের জন্য দুর্নীতি দমন অধিদফতরকে সাংবিধানিক মর্যাদা দিয়ে কমিশনে উন্নীত করা হয়েছে। সেই দুদক যখন দুর্নীতিকে আড়াল করে, তখন আমাদের উৎকণ্ঠা হয়। দুর্নীতিবাজদের আড়াল করতেই দুদক কর্মকর্তা শরীফ উদ্দিনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। এইভাবে অন্যায় করলে দুদকের সাধারণ কর্মচারীরা কাজ করতে পারবে না। দুর্নীতি দমনের জন্য সংসদকেই দায়িত্ব নিতে হবে। এসময় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক)-এর সার্বিক কর্মকাণ্ড খতিয়ে দেখতে সংসদীয় তদন্ত কমিটি গঠনের দাবি জানান তিনি।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সোমবার জাতীয় সংসদের ১৭তম অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

রাশেদ খান মেনন আরও বলেন, ‘দুদকের উপসহকারী পরিচালক শরীফ উদ্দিনকে কারণ দর্শানো নোটিশ ছাড়াই তাৎক্ষণিক বরখাস্ত করা হয়েছে। অথচ ৫৪ ধারাটি নিয়ে হাইকোর্টে রায়ে বলা হয়েছে এটি সংবিধানবিরোধী। যে বিষয় বিচারাধীন, সেই বিষয়টিকে পাশ কাটিয়ে বরখাস্ত করা হলো। দুদকের কর্মকর্তারা সারাদেশে মানববন্ধন ও অ্যাসোসিয়েশনও করলো। এতে দুদকের ভাবমূর্তিও কিন্তু ক্ষুন্ন হলো।’

এসময় কক্সবাজারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে শরীফ উদ্দিনের করা তদন্তের বিষয়টি তুলে ধরে মেনন বলেন, এই কারণে যদি তাকে বরখাস্ত করা হয়, তবে নিশ্চয়ই এর পেছনে শক্ত হাত রয়েছে। এখন তাকে বরখাস্তের পর বিষয়গুলো পুনঃতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে দুদক। আমি জানতে চাই, যেখানে মামলা হয়েছে, সেখানে কোন স্বার্থে হঠাৎ এই পুনঃতদন্ত হবে।